1. admin@bangladeshshomachar.com : admin :
আষাঢ়ের শ্রাবণ ধারায় মৌ মৌ গন্ধে ফুটেছে বর্ষার কদম ফুল, কালের বিবর্তনে বিলুপ্তির পথে কদম গাছ - দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার
বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৯:১৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মাঝারি ও ছোটরা এখনো দুর্দিনে চট্টগ্রামে শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭২তম জন্মবার্ষিকী পালিত সফেন প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক বহুমুখী শিল্পস্রষ্টা ড. খান আসাদুজ্জামান ও তাঁর সহধর্মিনী পুলিশ সুপার মাক্সুদা আকতার খানম পিপিএম-কে ঘিরে সুধী সমাবেশ ও সংবর্ধনা রাজশাহী মেডিকেলে একদিনে করোনা ভাইরাসে আরও ১৭ জনের প্রাণহানী পরীমনি ও রাজ মিলে গড়ে তোলেন অপরাধ সাম্রাজ্য;পরিমনি ও রাজসহ আটক ৪ নগরীতে জেলা প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত;১৫৭ মামলায় ৯৯ হাজার টাকা জরিমানা সাংবাদিক আল রাহমানের বাবা চলে গেলেন না ফেরার দেশে পতেঙ্গায় তেল চোরাই চক্র সক্রিয়; ২ হাজার লিটার চোরাই তেলসহ আটক ৩ নেত্রকোণা পৌর ভূমি অফিসের পুরাতন ভবনটি ভুমি যাদুকর ঘোষণা- নতুন ভবন উদ্ভোদন   পিকআপে করে কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামে আসছিল দেড় কোটি টাকার ইয়াবার চালান ! বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল এর ৭২ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে র‌্যালী

আষাঢ়ের শ্রাবণ ধারায় মৌ মৌ গন্ধে ফুটেছে বর্ষার কদম ফুল, কালের বিবর্তনে বিলুপ্তির পথে কদম গাছ

Reporter Name
  • প্রকাশিত : রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১
  • ৬ জন দেখেছেন
Spread this news to

মোহাম্মদ মনির হোসেন পাটোয়ারী

প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য বাংলার চিরায়ত রূপ। ছয় ঋতুর দেশ বাংলাদেশ। আষাঢ় শ্রাবণ দুই মাস বর্ষাকাল। মুষলধারে বৃষ্টি সজীবতার রূপ নিয়ে হাজির হয় বর্ষা। রূপ বৈচিত্র্য ঋতু বর্ষা যেন মেঘবতী কন্যার চোখের জলের দিন। শ্রাবণের অঝোর ধারায় বৃষ্টি নামে বাংলার জমিনে। গ্রামীন রাস্তা গুলো টিপ টপ বৃষ্টিতে কাঁদা মাটিতে ভরে যায়। শ্রাবণের বৃষ্টি নামলে বাংলার জনজীবনে সাময়িক ব্যাঘাত ঘটে। বর্ষার পানিতে খাল বিল নদী নালা পানিতে ভরপুর হয়ে যায়। বৃষ্টির সাথে কদমের ভালোবাসা তাই খুবই নিবিড়। অথচ ক্রমান্বয়ে হারিয়ে যাচ্ছে সেই কদম ফুল। বাংলার রূপ বৈচিত্র্যে ভরপুর বর্ষার ফুল কদম। প্রতি বছরই বর্ষা ঋতুর প্রথম দিকে ফুটে থাকে কদমফুল। আর এটাই হলো আবহমানকাল ধরে চলে আসা বাংলা ঋতু বৈচিত্রের প্রাকৃতিক নিয়ম। বর্ষার বিরামহীন বর্ষণে গাছের শাখা-প্রশাখায় সবুজ পাতার আড়ালে অসংখ্য কদম ফুল ফুটে উঠে। হলুদ সাদা রংয়ের গোল্ড বলের মত এই ফুলটি এখন শোভা পাচ্ছে কদম গাছে । বাংলার প্রকৃতিতে বাঙালি আর কদমফুল যেন একই সূত্রে গাঁথা। কদমফুলের মনভরা ঘ্রাণ প্রতিটি বাঙালিকে করে তোলে প্রকৃতির প্রতি আনন্দময়। বাড়ির আশেপাশে জন্মানো বনবৃক্ষ কদম গাছে ফুটে উঠা ফুলের সুগন্ধে মানুষের মনে জাগিয়ে দিচ্ছে এক অনাবিল প্রশান্তি ও বর্ষার অনুভূতি। খোলা আকাশে মেঘের গর্জন ও প্রচণ্ড ভারী বর্ষণ মনে করিয়ে দেয় এটা কদম ফুলের সিজন। তবে বর্তমানে এই ফুল গাছটি প্রকৃতি থেকে প্রায় হারিয়ে যাওয়ার দিকে। যেখানে সেখানে আর দেখা মিলছে না অপরুপ সৌন্দর্য নিয়ে দাড়িয়ে থাকা কদমফুল গাছ। প্রাকৃতিক ভাবে জন্মানো কদম গাছ যততত্র দেখা মিলে না। আবহমান বাংলার গ্রামের কিশোর-কিশোরীরা কদম তলায় কদম ফুলের পাঁপড়ি ছাড়িয়ে খেলা করতো। অনেক গুলো ফুল এক জায়গায় করে তোড়া বানিয়ে প্রিয় মানুষকে কদম ফুল উপহার দিতো। কিন্তু সেই গাছটির আজ যেন হারিয়ে যাওয়ার অবস্থা। কালের বিবর্তন ও লাভের অঙ্কের হিসেব মিলাতে গিয়ে কদম গাছ লাগানোর কথা এখন ভাবতেই পারছে না মানুষ। বরং এই গাছের বদলে লাগাচ্ছে মেহেগনি, আম, নারিকেল সহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ। তবে প্রকৃতির মাঝ থেকে কদমগাছ হারিয়ে গেলেও বর্ষার টিপটিপ জলরাশি তার বন্ধু রুপেই কল্পনায় মিলাচ্ছে এই ফুলকে। শ্রাবনের ফোঁটা ফোঁটা জলরাশি যেন মায়ার টানে পড়ছে কদম ফুলের পাঁপড়িতে। বাতাসে ছোট ছোট করে দোল খাচ্ছে কাল্পনিক সুরে। যান্ত্রিক সভ্যতা আর আধুনিক নগরায়নের যুুগে কদমগাছ হারাতে বসলেও এখনো গ্রামের সব জায়গা থেকে হারিয়ে যায়নি এই প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরা কদম গাছ। আর তাইতো বাংলাদেশের গ্রামীন মেঠো পথ আর বন বাদাড়ে একটু পলক তাকালেই চোঁখে পড়বে মৌ-মৌ সুগন্ধে ভরা বৃষ্টিভেজা কদমফুল। দিয়াশলাই বা ম্যাচের শলাকা হিসেবে কদম গাছের ব্যবহার, ঔষধী গাছ হিসেবে বেড়ে যাওয়ার কারণে নির্বিচারে কদম গাছ ব্যবহার কেটে ফেলা হচ্ছে। যে হারে গাছ নিধন করা হচ্ছে সে হারে গাছ লাগানো হচ্ছে না। সরকারের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগ নিলে রক্ষা পাবে কদম গাছের বিলুপ্তি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ

About Us

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ ড. খান আসাদুজ্জামান
ঠিকানাঃ এম এস প্লাজা (৮তলা) ২৮সি/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, মতিঝিল, বা/এ, ঢাকা-১০০০
নিউজ সেকশনঃ ০১৬৪১৪২৮৬৭০
বিজ্ঞাপনঃ ০১৯৯৬৩০৩০৭১
মফস্বলঃ ০১৭১৫২২৮৩২২
ই-মেইলঃ bangladeshshomachar@gmail.com
ওয়েবসাইটঃ www.bangladeshshomachar.com
ই-পেপার: www.ebangladeshshomachar.com
© All rights reserved © 2021 The Daily Bangladesh Shomachar
প্রযুক্তি সহায়তায় একাতন্ময় হোস্ট বিডি