চট্টগ্রামের নতুন বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান, এ বি এম আজাদকে বিপিসি’র চেয়ারম্যান

ইসমাইল হোসেন সোহাগ, বিশেষ প্রতিনিধি

চট্টগ্রামে নতুন বিভাগীয় কমিশনারের দায়িত্ব পেয়েছেন ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার (অতিরিক্ত সচিব) মো. কামরুল হাসান। গত ১৮ মে”২০২১ইং মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাঠ প্রশাসন-২ শাখার উপ-সচিব শাহীন আরা বেগমের স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ জারি করা হয়। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার (অতিরিক্ত সচিব) এ বি এম আজাদকে বাংলাদেশ পেট্টলিয়াম কর্পোরেশনের জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের চেয়ারম্যান (সচিব) হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। জানা যায়, চট্টগ্রামের নতুন বিভাগীয় মো. কামরুল হাসান জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলার ফাজিলপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম মো. রকিবুল ইসলাম এবং মাতার নাম মোছা. মনোয়ারা বেগম। তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃষিতে স্নাতক ডিগ্রি এবং পরবর্তীতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ থেকে এনডিসি কোর্স সম্পন্ন করেন এবং Bangladesh University of Professional (BUP) থেকে সিকিউরিটি এন্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন। এর আগে ১৯৯৩ সালে ১১তম বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে প্রশাসন ক্যাডারে যোগদান করেন তিনি। যোগদানের পর থেকে তিনি বিভিন্ন পদে বিভিন্ন উপজেলা, জেলা ও মন্ত্রণালয়ে কাজ করেছেন। ১৯৯৩ সালে চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার হিসেবে যোগদান করেন এবং সেখান থেকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, সিলেটে সহকারী কমিশনার ও ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে পদায়ন করা হয়। পরবর্তীতে তিনি সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে মৌলভীবাজার সদর এবং সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলায় দায়িত্ব পালন করেন। তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া, ভোলার লালমোহন ও মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলায় কাজ করেছেন। তিনি মাগুরায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে তিনি ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৯, ২০১০, ২০১১ ও ২০১২ সালে মৌসুমি হজ্ব অফিসার হিসেবে সৌদি আরবের জেদ্দায় কর্মরত ছিলেন। তিনি জেলা প্রশাসক হিসেবে মৌলভীবাজার জেলায় দায়িত্ব পালন করেন। তিনি উপসচিব ও যুগ্মসচিব হিসেবে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে এবং যুগ্মসচিব হিসেবে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে কর্মরত ছিলেন। পরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীনে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এর নির্বাহী সদস্য (অতিরিক্ত সচিব) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *