গৌড়স্থান নয়াপাড়া রাস্তার বেহাল দশা, দেখার যেন কেউ নেই

ইসমাইল হোসেন সোহাগ, বিশেষ প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার ৭নং পুটিবিলা ইউনিয়নের গৌড়স্থান সিকদার পাড়া থেকে নয়াপাড়া এবং নয়াপাড়া ব্রিজ থেকে আব্দুল মতলব মুন্সির বাড়ি পর্যন্ত সড়কের বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় প্রতিনিয়ত চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে এলাকার সাধারণ মানুষের। সড়ক নয় যেন মরন ফাঁদ, দেখার কেউ নেই। যাহা স্ব-চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা যায় না। এখানে ব্যবসা বানিজ্যের অনেক সুযোগ সুবিধা থাকায় ব্যবসায়ীরা কয়েক যুগ ধরে ব্যবসা করে আসছেন। সেখান থেকে ব্যবসায়ীরা নয়াবাজার, এম,চর হাট বাজার, লোহাগাড়া আমিরাবাদ সহ বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে ব্যবসা করে আসতেছে। তবে এই এলাকা থেকে এখনো বেশ কয়েকটি গ্রামের জনগণ চলাচল করতে অনেক ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। যেমন – পূর্ব পাড়া, দক্ষিণ নয়াপাড়া, চার ঘড়িয়া পাড়া, পশ্চিম পাড়া সহ আরো কয়েকটি গ্রাম রয়েছে। দেশের অন্যান্য জায়গার যোগাযোগ ব্যবস্হার চিত্র আর এই এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্হার চিত্র দেখে ভিন্ন অঞ্চলের যাতায়াতকারী লোকজন মন্তব্য করেন এই এলাকা যেনো অভিভাবকহীন। যোগাযোগ ব্যবস্হার এমন নাজুক চিত্র দীর্ঘদিন থেকে বহাল থাকায় ক্ষুব্দ এলাকাবাসী। স্থানীয়’রা জানান, আমাদের এলাকা গুলো খুবই অবহেলিত এলাকা মনে হচ্ছে। কারণ আমাদের চলাচলের দীর্ঘদিনের কষ্ট গুলো এখনো গেলো না। এই পর্যন্ত আমাদের দেখা অনেক জন-প্রতিনিধি’রা আসছে আর গেছে কিন্তু এখনো আমাদের দুঃখ-কষ্ট গুলো যায়নি। নির্বাচনের পুর্বে বিভিন্ন উন্নয়ন মুলক প্রতিশ্রুতি দিলেও অন্যান্য প্রতিশ্রুতির সাথে এ সড়কটির নাজুক অবস্থা দেখেও এড়িয়ে চলছেন নির্বাচিত প্রতিনিধিরা। এই এলাকার বিভিন্ন পাড়ার মানুষের চলাচলের একমাত্র এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে যাচ্ছে। এই সড়ক গুলো দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বর্ষা মৌসুমে হাঁটু পরিমান কাঁদা মাটিতে পরিণত হয়। তাছাড়াও রাস্তাটির মাঝে মাঝে বড় বড় গর্তে পরিণত হওয়ায় এ সড়ক দিয়ে স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসার ছাত্র ছাত্রী এবং রোগী সহ এলাকার জন সাধারণকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। জানা যায়, এই সড়ক গুলো পাকা করনের জন্য টেন্ডার দেওয়া হলেও এ সড়ক গুলোর কাজ এখনো করা হয়নি। প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী যানবাহন গুলো প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। তাই এলাকাবাসীর জোর দাবী এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *