কালিয়াকৈরে বনের জমিতে গড়ে উঠেছে হাটবাজর নিয়ন্ত্রণে প্রভাবশালীরা


স্টাফ রিপোর্টারঃ এম হাসান 

গাজীপুর কালিয়াকৈর উপজেলার পূর্ব চন্দ্রা বোট মিল খাদেম মার্কেট নামক এলাকায় বনের জমিতে গড়ে উঠেছে বহুতল ভবন ও হাটবাজার। স্থানীয়রা বলছেন ১৯৯২ সাল থেকে ধীরে ধীরে  বনের জমি অবৈধভাবে দখল করে প্রভাবশালীরা বহুতল ভবন মার্কেট ও হাটবাজার গড়ে উঠেছে। 
এদিকে বনের ভিতর রেকর্ড জমিতে বিভিন্ন শিল্প কারখানা গড়ে উঠায় দ্রুত পাল্টে গেছে এই এলাকার চিত্র। কয়েক বছর আগেও যেখানে লোকজন  তেমন কোন যাতায়াত করতো না বর্তমানে সেখানে উপকার ভোগীদের প্লটে গড়ে উঠেছে  খোলা হাটবাজার আদাপাকা দোকান ও বহুতল ভবন তৈরি হয়ে আবাসিক এলাকায় পরিণত হয়েছে। এ সুযোগে আর্থিক লাভবান হচ্ছেন উপকার ভোগীরা। স্থানীয় বাসিন্দা উপকার ভোগী মোঃখাদেম আলী জানান সরকার বন রক্ষণাবেক্ষণ করতে বহু সংখ্যক মানুষকে প্লট বরাদ্দ দিয়েছে এক্ষেত্রে দু’পক্ষের লাভ হওয়ার কথা থাকলেও  আজহার নামে এক ব্যক্তির  বন বিভাগের সাথে রেকর্ড জমির জটিলতার কারণে দীর্ঘ পঁচিশ বছর গাছ কাটা বন্ধ রয়েছে। তিনি আরো বলেন  বলছেন ১৯৯২ সাল থেকে সামাজিক বনায়নের গাছ না কাটার কারনে এখান থেকে তাঁরা কোন আর্থীক লাভবান হচ্ছে না এমনকি সরকারও লাভবান হচ্ছেনা। আমি ও আমার মতো অনেকে গাছের ফাঁকা যায়গায় অস্থায়ী দোকানপাট বসিয়েছি। তিনি বলেন দোকানপাট থেকে যে টাকা পাই তা দিয়ে আমার পরিবারের খরচ বহন করেও মসজিদ স্কুল নির্মাণ করে দিয়েছি ও জনকল্যাণমুখী কাজে ব্যায় করছি।এছাড়া   সরকার চাইলে যেকোন সময় এসব অস্থায়ী দোকানপাট উঠিয়ে দিবে বলে জানান।খাদেম আলী আরো বলেন  উপকার ভোগীদের অস্থায়ী দোকানপাট দখলে নিতে একটি মহল সক্রিয় আছে।  ১৭ এপ্রিল বিকালে  দখলবাজ দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারি ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয় এতে মানিক নামে একজন গুলিবিদ্ধ হয় অপরজন বাবুল নামের একজনের দুই পা ভেঙে যায়। এতে আমরা উপকার ভোগীরা আতংকে আছি। 
প্রভাবশালী এক রাজনৈতিক নেতা হাটবাজার দখল নিতে গড়েতোলেছে নিজস্ব পেটোয়া বাহিনী দুইবছর আগে নূর মোহাম্মদ  নামে এক উপকার ভোগীর প্লট দখল করে ভাড়া নিচ্ছে। 
খাদেম কান্না জরিত কন্ঠে  বলেন তার পিতা একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন আর একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হয়ে আজ বৃদ্ধ বয়েসে  মানিকের ভগ্নিপতি বাদশা মিয়া মিথ্যা মামলা দিয়ে আসামি বানিয়ে দিয়েছে। 

কথা হয় উপকার ভোগী  নূর মোহাম্মদ এর স্ত্রী পারুল বেগমের সাথে তিনি বলেন দু’মাস পূর্বে তার স্বামী নূর মোহাম্মদ মৃত্যু বরণ করেছেন, আড়াই বছর আগে তারই আপন খালাত ভাই স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা মোঃরফিকুল ইসলাম বন বিভাগ থেকে বরাদ্দ পাওয়া প্লট দখল নিয়ে অস্থায়ী দোকানপাট বসিয়ে  ভাড়া আদায় করছে। তিনি আরো বলেন এবিষয়ে বন কর্মকর্তাদের একাধিকবার জানিয়ে কোন লাভ হয়নি পরিবারের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে ভয়ে এখন আর কিছুই বলেন না।  

আহত বাবুল জানান বনের জমিতে আমার দু’টি দোকান ছিলো রফিক নেতার সাঙ্গপাঙ্গরা আমার কাছে ভাড়া ও চাঁদা দাবি করে আমি দিতে সস্কৃতি জানালে ১৭ এপ্রিল খাদেমের মার্কেটে ঔষধের দোকানে বসে থাকা অবস্থায়  টিপু, সুলতান, রাকিব আমার উপর হামলা করে আমার দু’টি পা ভেঙে দিয়েছে  ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করায় বাম হাতের অনেখানি কেটে যায়। আহত মানিকের ভগ্নিপতি বাদি হয়ে গত ১৮ এপ্রিল ২১ তারিখে খাদেম, বাবু সহ সাতজনকে আসামি করে কালিয়াকৈর থানায় মামলা করে। মামালার বিষয় জানতে বাদি বাদশা মিয়াকে একাদিকবার ফোন করেও পাওয়া যায়নি। এবিষয়ে কথা হয় স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা রফিকুল ইসলামের সাথে তিনি বলেন,আমি  সচ্ছল পরিবারের একজন সন্তান। এগুলোর বিষয় তিনি কিছুই জানতেন না। তিনি বলেন তার ইমেজ নষ্ট করার জন্য একটি মহল হয়তোবা একাজ করেছে। তাছাড়া সরকারি জমি দখল মুক্ত হোক তা আমি চাই। 
এবিষয়ে চন্দ্রা বীট কর্মকর্তা বলেন বোটমিল সহ আসপাশের বনের প্লট থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সহ সাত দিনের নোটিস দেয়া হয়েছে। যেকোন উপায়ে সরকারি বনভূমি রক্ষা করতে প্রয়োজনিও সহযোগিতা পেতে উর্ধতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *