গাজিপুরে জিসিসি ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে প্রধান আসামি করে “২৭” জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা

স্টাফ রিপোর্টারঃএম হাসান

গাজীপুর মহানগরীর ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে প্রধান আসামি করে ২৭ জনের বিরুদ্ধে কাশিম থানায় অভিযোগ দায়ের করে কেএসি ফ্যাশন ওয়্যার লিঃ এর জিএম মোঃইশতিয়াক আহমেদ চৌধুরী । গত ৫ মে কাশিমপুর থানায় মামলাটি এফআইআর ভূক্ত করেন। এজাহারে বেআইনি ভাবে জনতা বদ্ধে ফ্যাক্টরীতে প্রবেশ,চাঁদা দাবি ও শ্রমিককে মাধর করে গুরুতর জখমের অভিযোগ করা হয়েছে । অভিযুক্তরা হলেন (১) মোঃমোন্তাজ উদ্দিন মন্ডল (২) মোঃআব্দুল হালিম (৩) মোঃশহীদুল্লাহ (৪) মাসুদ রানা (৫) আব্দুল গণি (৬) ফরহাদ ফকির (৭) আবদুল কালাম (৮) কামরুল বেপারী (৯) ইমরান (১০) মামুন শেখ (১১) আনোয়ার দেওয়ান সহ এজার ভূক্ত আরো ১৬ জন আাসামি। এবিষয়ে ফ্যাক্টরী কর্তৃপক্ষ এম ডি আবিদ আলম চৌধুরী, ডিরেক্টর আহমেদ জান চৌধুরী,এ্যাডমিন ডিরেক্টর মোঃ ফারুক আহমেদ গণমাধ্যমকে জানান, স্থানীয় ২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোন্তাজ উদ্দিন মন্ডল, ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃআব্দুল হালিম, সাধারণ সম্পাদক মোঃশহীদুল্লাহ খান দীর্ঘদিন ধরে ফ্যাক্টরীতে চাঁদা দাবি করে আসছে। চাঁদা দিতে অস্কৃতি জানালে পূর্ব জেরে ২ রা মে আনুমানিক সময় ২ টা তিতিশ মিনিট এক দেরশত লোকজন নিয়ে ফ্যাক্টরী গেটে জোর পূর্বক প্রবেশের চেষ্টা করে। এসময় গেটে দায়িত্ব পালন করা ফ্যাক্টরীর নিরাপত্তা কর্মী বাঁধা দিলে নিরাপত্তা কর্মীদের মারধর করে ভিতরে প্রবেশ করে এসময় অন্তত দশ বারোজন আহত হয়ে। এখবর তাৎখনিক ছড়িয়ে পরলে ফ্যাক্টরীর শ্রমিকরা বের হয়ে প্রতিহত করারা চেষ্টা করলে ফ্যাক্টরী কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের শান্ত করে। খবর পেয়ে কাশিমপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ মাহবুব ই খোদা ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে পুলিশ ফ্যাক্টরী গেটে থাকা ভিডিও ফুটেজ দেখে দুই পক্ষের সাথে আলাপ আলোচনা করে বিষয়টি কাউন্সিলর মোন্তাজ উদ্দিন মন্ডলের সাথে লিখিত ভাবে সমঝতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় তিনি অঙ্গীকার করেন অদূর ভবিষ্যতে তিনি আর কোন ঝামেলা করবেন না। তিনি আরো বলেন ফ্যাক্টরীর জেরে গত ৩ রা মে কেএসি ফ্যাশন ওয়্যার লিঃ ফিনিশিং সেকশন প্রডাকশন অফিসার পদে কর্মরত মোঃরহিদুল ইসলাম কে তার বাড়ির সামনে ইফতারে পর পূর্বপরিকল্পিত ভাবে কাউন্সিল মোন্তাজ উদ্দিন মন্ডল ও তার লোকজন মারধর করে তা দুটি পা ভেঙে দেয়। আহত রহিদুল কে শেখ ফজিলাতুন্নেছা মেমোরিয়াল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ফ্যাক্টরী কর্তৃপক্ষ তার সু চিকিৎসার ব্যায়ভার বহন করছে বলে জানান। শেখ ফজিলাতুন্নেছা মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত রহীদুল ইসলাম জানান, গত ৩ রা মে কাউন্সিলর মোন্তাজ উদ্দিন মন্ডল ও তার দলবল নিয় মোজারমিল এলাকায়। বাড়ির সামনে ইফতারে পর চা খেতে বেরহলে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে পূর্ব শত্রুতার জেরে তাকে মারধর করে দুটি পা ভেঙ্গে দেয়। এদিকে ৪ ঠা মে রহিদুল ইসলামকে মারধরের খবর ফ্যাক্টরীতে ছড়িয়ে পরলে শ্রমিকরা কাউন্সিলরের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে বিকাল তিনটায় নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়ক অবরোধ করে প্রতিবাদ জানায় এসময় মহাসড়কের উভয় পাশে দীর্ঘযানজটের সৃষ্টি হয়ে। পরে কাশিমপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ মাহবুব ই খোদা ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার এ কে এম শাহীন মন্ডল ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে অবশেষে দু-ঘন্টা পর শ্রমিকরা মহাসড়ক ছেড়ে কর্মস্থলে ফিরে যায়। এছাড়া কে এ সি ফ্যসক্টরীর স্টোর কিপার মোঃআক্তার হোসেন বলেন ফ্যাক্টরীর জেরে গত ২ রা মে চক্রবর্তী এলাকায় বিকাল তাঁর ক্যান্টিনে শ্রমিকদের জন্য সরবরাহ করতে রাখা ইফতার সামগ্রী সহ ক্যান্টিন ভাঙ্গচুর করে। এবিষয়ে কাশিমপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ বলেন অভিযোগ আমলে নেয়া হয়েছে। দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *