গাজীপুরে কৃষি ভূমির মাটি ব্যবহার হচ্ছে ইটভাটায়

স্টাফ রিপোর্টার-এম হাসান

গাজীপুর মহানগরীর বাঘিয়া, বাইমাইল এলাকায় কৃষি জমির মাটি কেটে সরবরাহ করছে কোনাবাড়ি ইউনিক সিরামিক ইটভাটায় মাটি ব্যবসায়ীরা। প্রতিবছর শুস্ক মৌসুমে শিপন,হাবিব,গোলাম রাব্বানী ও খোকন নামে মাটি ব্যবসায়ীরা মেতে উঠে মাটি কাটার মহা উৎসবে। এবিষয়ে কোনাবাড়ি ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আব্দুল রাজ্জাক ও বাসন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃজশিম উদ্দিন পালোয়ান জানান মাটি ব্যবসায়ীরা স্থানীয় প্রভাবশালী হওয়ায় বাঁধা দিয়েও বন্ধ হচ্ছেনা অবৈধ মাটি কাটা। এবিষয়ে গাজীপুর সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি কর্মকর্তার বরাবর একমাস পূর্বেই প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে বলেও জানান এই দুই ভূমি কর্মকর্তা । বাঘিয়া ও বাইমাইলে বিগত কয়েক বছর যাবত শিপন নামে মাটি ব্যবসায়ী বিশাল আকৃতির গভীর গর্ত করে মাটি কেটে নিচ্ছে ইটভাটায় অপরদিকে কড্ডায় ফসলি জমির মাটি কেটে রাস্তা ও ভরাটের কাজে মাটি সরবরাহ করছে খোকন, গোলাম রাব্বানী ও হাবীব নামে মাটি ব্যবসায়ীরা। স্থানীয়রা বলছেন যেভাবে জমি নষ্ট করে মাটি নিচ্ছে কয়েক বছরের মধ্যে জমির অস্তিত্ব আর থাকবেনা। এছাড়া ধানের মূল্য কম হওয়ায় ফসল উৎপাদন বাদ দিয়ে কৃষি জমির মাটি বিক্রয়ে উৎসাহ দিচ্ছে মাটি ব্যবসায়ীরা। গত ২০১৯ সালে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী গাজীপুর মহানগীরর ১৭৪ অবৈধ ইটভাটা বন্ধ হলেও বহালতবিয়তে এখনো চলছে ইউনিক সিরামিক ইটভাটা। ভাটা সচল রাখতে ইট তৈরির মাটির যোগান পুরোটাই আসে নিকটস্থ কৃষি ভূমি থেকে। গতবছর অবৈধভাবে মাটি ক্রয়ের দায়ে ইউনিক সিরামিক ইটভাটাকে আর্থিক জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। তবুও থেমে নেই ইট প্রস্তুত করার উদ্দেশ্য কৃষি ভুমির মাটি কাটা। সংশ্লিষ্টরা বলছেন অবৈধ মাটি ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *