সংযোগ সড়ক বিহীন তুরাগ সেতু এলাকাবাসীর ভোগান্তি

স্টাফ রিপোর্টারঃএম হাসান

গাজীপুর কালিয়াকৈর উপজেলার স্বাকাশ্বর এলাকায় তুরাগ নদীর উপর নির্মিত সেতুটির সংযোগ সড়ক না থাকায় এলাকাবাসীর কোন উপকারে আসছে না। সেতুর পূর্ব পারে সবুজ ফসলের মাঠ থাকায় সেতুটি দর্শনার্থীদের বিনোদনের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিনিত হয়েছে।২০১৭ সালে ৪ কোর্টি ২৬ লাখ টাকা ব্যয়ে সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়, নির্মাণ কাজ শেষে ২০২০ সালের ১১ জুলাই সেতুটি উদ্বোধন করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আ.ক.ম মোজাম্মেল হক ও যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল। সেতু নির্মাণ কাজ শুরু থেকে গত চার বছরেও তৈরি হয়নি সংযোগ সড়ক। প্রতিদিন সেতুর ডাল বেঁয়ে স্থানীয়দের যাতায়াত করতে হয় শুষ্ক মৌসুমে যাতায়াত করা গেলেও বর্ষা মৌসুমে ভোগান্তী পোহাতে হয় এলাকাবাসীর। গাজীপুর সদর উপজেলা প্রকৌশলী মুহাম্মদ শাকিল হোসেন জানান,যখন সেতু নির্মাণের প্রস্তাব করা হয় তখন সিটি কর্পোরেশনের কার্যক্রম ছিলনা। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর কাজটি বাস্তবায়ন করলেও সেতুর কাজর তদারকি করেছে উপজেলা প্রকৌশলী অফিস। স্থানীয়রা বলছেন সেতুর পূর্ব পাশের খালিশা বর্তা এলাকা সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় সংযোগ সড়ক নির্মাণ করার বিষয়টি সিটি করপোরেশনের সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করছে। কৃষকরা বলছেন রাস্তা নির্মাণে জমি অধিগ্রহণে জটিলতায় রাস্তাটি আজো আলোর মুখ দেখেনি। স্থানীয় কৃষকরা আরো জানান জমি ও ফসলের মূল্য পরিশোদের কথা বলে কৃষি জমির উপর রাস্তার কিছু অংশ নির্মাণ করে আপাতত বন্ধ রয়েছে কাজ। কৃষকদের দাবী জমির মূল্য দিয়ে রাস্তা নির্মাণে তাঁদের কোন আপত্তি নেই। ২১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ ফারুক আহম্মেদ জানান, স্বাকাশ্বর এলাকায় তুরাগ নদীর উপর নির্মিত সেতু থেকে মাস্টারবাড়ী ময়মনসিংহ মহাসড়কে সংযোগ রাস্তাটি সিটি কর্পোরেশনের নির্মাণের কথা রয়েছে। রাস্তাটি নির্মাণ কাজের সিদ্ধান্ত এখনো পাইনি, আর জমি অধিগ্রহণে কৃসকদের ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে কি না বিষয়টি মেয়রের সিদ্ধান্ত বলেও জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *