মিরাজের সেঞ্চুরিটা এল আসল সময়েই

মেহেদী হাসান মিরাজের ক্যারিয়ার পরিসংখ্যানে একটি জায়গায় এত দিন ছিল ‘শূন্যে’র আধিপত্য। হ্যাঁ, এই শূন্যতা তিন অঙ্কের একটা ইনিংসেরই। ২৩তম টেস্ট খেলছেন, প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন ৪১টি; ওয়ানডে ৪৪, লিস্ট ‘এ’ ৯৩টি। ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ মিলিয়ে খেলা হয়ে গেছে ৮৮টি ম্যাচ। কিন্তু সেঞ্চুরি একটিও করতে পারেননি। শতকের স্বাদ কেমন, সেটি এত দিন জানা ছিল না তাঁর। ক্যারিয়ারের প্রথম শতকটি করলেন এমন একটা মুহূর্তে, যখন সে ধরনের কিছুরই দরকার ছিল বাংলাদেশ দলের। একেবারে টেস্ট ক্রিকেটের মঞ্চে দাঁড়িয়েই প্রথম শতরানের গৌরব গায়ে মাখলেন তিনি।

২৩তম টেস্টে এসে নিজের সর্বোচ্চ সংগ্রহ দেখলেন তিনি। কিন্তু কে ভেবেছিল সেই ইনিংসটিই তিনি শতরানে রূপ দেবেন। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ফিফটিকে বড় করা, কিংবা সেটিকে শতকে পরিণত করার প্রবণতা এতটাই কম, তাই মিরাজের সেঞ্চুরিটি তাই ছিল আনন্দময় একটা ব্যাপারই। তাঁর ১৬০ বলে ১০৩ রানের ইনিংসটি অবশ্য পুরোপুরি কলঙ্কমুক্ত নয়। ২৪ রানে জোমেল ওয়ারিক্যানের বলে প্রায় আউট হতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সৌভাগ্য তাঁর সে যাত্রায় বেঁচে যান। সেই ওয়ারিক্যানের বলে সুইপ করেই নিজের প্রথম সেঞ্চুরিটি আদায় করে নিয়েছেন বাংলাদেশের এই তরুণ অলরাউন্ডার। শেষ পর্যন্ত রাকিম কর্নওয়েলের বলে লং অনে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *